মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৭:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
আজকের পত্রিকা -০৪-০৬-২০২২ সৈয়দপুরে মাদক ব্যবসায়ীদের টার্গেট এখন ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ কমিটি, উদ্দেশ্য পদ পদবী বাগিয়ে নির্বিঘ্নে মাদক ব্যবসা  সৈয়দপুর বিমানবন্দরে ভিআইপি লাউঞ্জে নিরাপত্তা কর্মীর উপর যুবলীগ নেতার ক্ষমতার অপব্যবহার সৈয়দপুরের কল্যান ট্রাষ্টের নামে লন্ডাবাজার অবৈধ রেল মার্কেটের কোটি কোটি টাকা লুটপাঠ সৈয়দপুর রেল কারখানার জায়গায় অবৈধভাবে স্থাপিত সরকারী শিশু কল্যাণ ট্রাষ্ট স্কুল দুর্নীতিবাজ রেল কর্মকর্তার যোগসাজসে ভূমিদস্যুরা হাতিয়ে নিয়েছে রেলের কোটি টাকার সম্পদ সৈয়দপুর পৌর আ’লীগের ইফতার মাহফিলে দাওয়াত পাননি ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোকছেদুল মোমিন সৈয়দপুরে আসামীদের সাথে নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করলেন মোকছেদুল মোমিন সৈয়দপুর পৌরসভা কর্তৃক সরকারী সম্পত্তি আত্মসাতের অপরাধে রেল কর্তৃপক্ষের মামলা সৈয়দপুর বিমানবন্দর রোডে ৫৪৪নং রেল কোয়ার্টার ভেঙ্গে কোটি টাকার মার্কেট নির্মাণ, নির্বিকার রেল প্রশাসন

মাদকে ভাসছে সৈয়দপুর, নির্বিকার নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর

মোতালেব হোসেন
  • সময় মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ, ২০২২
  • ১৭৬ বার পঠিত

শিক্ষা নগরী সৈয়দপুরে রয়েছে ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড স্কুল, ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, সরকারী বিজ্ঞান কলেজ, ল্য়ন্স স্কুল এন্ড কলেজ, সানফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজ, মহিলা কলেজ, সৈয়দপুর সরকারী কলেজ, আদর্শ কলেজ, পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, তুলসীরাম উচ্চ বিদ্যালয়, ইসলামিয়া হাই স্কুল, বাংলা হাইস্কুল, মুসলিম হাই স্কুল, কামারপুকুর কলেজ, রেলওয়ে হাই স্কুলসহ একাধিক ভকেশনাল কলেজ ও স্কুল। সর্বশেষ সৈয়দপুর আর্মি ইউনিভার্সিটিও যোগ হয়েছে এই শহরে। এই ইউনিভার্সিটির কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর থেকে শহরের ক্যান্টমেন্ট এলাকা থেকে চৌমুহনি এলাকার প্রত্যন্ত গ্রামও শহরে পরিনত হয়েছে। শহরে ছাত্রদের আধিক্য বাড়ার কারনে বসে নেই মাদক কারবারীরা। তারাও কোমর বেঁধে নেমেছে, তারা একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট করে শহরের প্রতিটি পাড়া মহল্লা, কলেজ ক্যাম্পাস, রেষ্টুরেন্ট এমনকি সড়কেও চালাচ্ছে তাদের অবৈধ মাদকের কারবার।

 

সৈয়দপুরে ক্যান্টনমেন্ট রোড, ১নং রেলওয়ে ঘুমটি সংলগ্ন ফুল বাগান, ১১০ নং বাংলো পিকআপ ষ্ট্যান্ড, সিএসডি মোড়, ফাইভ ষ্টার মাঠ, ক্যান্টমেন্ট পাবলিক স্কুলের সামনে বুচারী গেট, পার্বতীপুর রোডের মোড়, আদানী মোড়, জুম্মাপাড়া, লায়ন্স স্কুলের গলি, একাউন্টস অফিসের গলি, হাতিখানা গোরস্থান গেট, কদমতলী, মহুয়া গাছ, মুন্সীপাড়া, ইসলামিয়া স্কুলের গলিসহ আশেপাশের এলাকাগুলির মাদক নিয়ন্ত্রন করে সরকার দলীয় কথিত এক যুবলীগ নেতা। তিনি মুন্সীপাড়া থেকে তার পোষা ক্যাডার ও ক্যাম্পবাসী অবাঙ্গালী হকারদের মাধ্যমে এই সমস্ত এলাকায় মাদক সরবরাহ করেন। তাদের টার্গেট হলো স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্ররা। তাদের সাথে নানানভাবে সখ্যতা তৈরী করে বিভিন্ন স্পটসহ মাদকের হোম ডেলিভারীর ব্যবস্থাও করছে ফলে শিক্ষানগরী খ্যাত সৈয়দপুর পরিনত হচ্ছে মাদকের নগরীতে। মাদক সম্রাট কথিত এই যুবলীগ নেতা তার পোষা বাহিনীর মাধ্যমে সারাদিন মাদকের ব্যবসা করেন এবং তিনি নিজে সারাদিন ঘুমিয়ে কাটান। রাত ১০ টার পরে দামী অভিজাত গাড়িতে চড়ে বের হয়ে মুন্সীপাড়া থেকে পার্বতীপুর মোড় হয়ে ক্যান্ট পাবলিক স্কুল থেকে রেল গুমটি পর্যন্ত গভীর রাত অবধি মাদক বিক্রির টাকা একত্রিত করে বাড়ি ফেরেন। স্থানীয় পৌর আওয়ামীলীগ তার এই কুকর্মের কারনে তাকে দল থেকে বহিস্কার করলেও মাদকের অবৈধ ব্যবসার মজা সে ছাড়তে পারেনি। তা এই অবৈধ ব্যাবসা পরিচালানার জন্য সে মোটা অংকের উৎকোচ মাদকদ্রব্য অধিদপ্তর ও প্রশাসনসহ দলীয় অসৎ নেতাদের দিয়ে থাকে।

 

মাঝে মাঝে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর লোক দেখানো অভিযান পরিচালনা করে কিছু মাদকসেবী ও খুচরা বিক্রেতাকে ধরে গডফাদারদের আড়াল করছেন। এব্যাপারে একাধিক আওয়ামীলীগ নেতা ও সুধী সমাজের কথা বললে তারা বলেন গ্রাম পর্য়ায়ে মাদক সম্রাট মোন্নাফ ডাকাত এবং শহরে মাদক সম্রাট কথিত এই যুবলীগ নেতা, এদের বৈধ কোন ব্যবসা নেই তারা মাদক ব্যবসা করেই এখন বিলাস বহুল জীবন যাপন করছেন।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরও সংবাদ
 

দৈনিক দাবানল © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০

themesba-lates1749691102